শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৯:২১ অপরাহ্ন

অভিনয়কে পেশা হিসেবে নেবো না : শাহনাজ সুমি

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯
  • ৯৩ বার

প্রতিশ্রুতিশীল মডেল ও অভিনেত্রী শাহনাজ সুমি। সম্প্রতি গিয়াসউদ্দিন সেলিমের ‘পাপ-পুণ্য’ সিনেমার কাজ শেষ করেছেন। এ সিনেমা ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন শাকিল মাহমুদ
আপনি মূলত: নূত্যশিল্পী নাকি অভিনয়শিল্পী?
আমি মূলত: একজন নৃত্যশিল্পী। তবে অভিনয় নাচের সঙ্গে অনেকটাই সম্পৃক্ত। তাই মনে হলো অভিনয়টা চেষ্টা করে দেখা উচিত।
‘পাপ-পুণ্য’ ক্যারিয়ারের প্রথম সিনেমা। শ্যুটিংয়ের অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?
এ বছরেই আমি এইচএসসি পাস করেছি। পরীক্ষার শেষ দিকে চ্যানেল আই থেকে সিনেমাটির অডিশনের খবর পাই। যখন শুনি এটি গিয়াসউদ্দিন সেলিমের সিনেমা, তখনই অডিশন দেব বলে মনস্থির করি। চান্স পাব কি না এর চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল গিয়াসউদ্দিন সেলিমের সঙ্গে দেখা করা। প্রাথমিক অডিশনে টিকলাম, সেকেন্ডারি অডিশন দিলাম। এভাবে তিন-চারবার অডিশনের পর জানতে পারলাম ‘পাপ-পুণ্য’র জন্য আমি নির্বাচিত হয়েছি। শ্যুটিংয়ের দিনগুলো স্বপ্নের মতো কেটেছে। প্রথমে একটু নার্ভাস ছিলাম জীবনের প্রথম সিনেমা বলে কথা। ‘পাপ-পুণ্য’র গল্পের নামের মধ্যেই ফুটে ওঠে। তাড়নার গল্প যা মানুষের জীবনের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। আর নির্মাতার নির্মাণশৈলী নিয়ে তেমন কিছু বলব না। আশা করি সিনেমাটি ভালোভাবেই দর্শকের কাছে পৌঁছাবে।
আপনার সহশিল্পীরা সবাই অভিজ্ঞ। কতটা সহায়তা পেয়েছেন তাদের?
চঞ্চল চৌধুরী, সিয়াম আহমেদ, আফসানা মিমি, ফারজানা চুমকি তারা যে এতটা কো-অপারেটিভ; তা কাজ না করলে বুঝতাম না। আমি টোটালি ব্লেসড! প্রথম সিনেমা, কীভাবে কী হবে, এত গুণী শিল্পীর মধ্যে আমাকে কেমন লাগবে এসব নিয়ে আমার মধ্যে চিন্তা ছিল। তারা ব্যাপারটাকে সহজ করে দিয়েছিলেন।
সিনেমার ক্ষেত্রে পরিকল্পনা কী?
আসলে কাজ তো অবশ্যই করতে চাই। কিন্তু পর্দায় না থাকলে দর্শক আমাকে ভুলে যাবে এই ভাবনা নিয়ে যেনতেন কাজ করতে চাই না। আমার সিনেমা দিয়ে বেঁচে থাকার ইচ্ছা নেই। বরং সিনেমাকে বাঁচিয়ে রেখে তার মধ্যে বেঁচে থাকার ইচ্ছাটাই বেশি। এটা আমার ভালোবাসার জায়গা।
পরিবার কতটা সাপোর্ট দিয়েছে?
সব বিষয়ে আমার পরিবার যথেষ্ট হেল্পফুল। আমি নাচ শিখতে শুরু করি যখন স্কুলেও ভর্তি হইনি। আমার মা আমাকে নাচ শেখার স্কুলে নিয়ে যেতেন। বাবা, বড় আপু, ছোট বোন, নানুবাড়ি থেকে শুরু করে সবার বন্ধুত্বপূর্ণ সহায়তা পেয়েই আজকে আমি এ জায়গায় দাঁড়িয়েছি।
ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?
এখনো ভার্সিটিতে ভর্তি হতে পারিনি। ভর্তি হওয়ার পর ঠিক করব কী হব! তবে অভিনয়, নাচ ভালোবাসার জায়গা। এখানে সব সময় থাকব। পেশা হিসেবে নাচ, অভিনয়কে নেওয়ার ইচ্ছা নেই আমার।
প্রেম-ভালোবাসা…
আমি সিদ্ধেশ্বরী গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজে পড়েছি। তাই প্রেমে পড়ার মতো পরিবেশ ছিল না। তবে কয়েকজন আমাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিল। আমার অবশ্য মনে হয়, কেউ মজা করে সেগুলো করেছে। এ ছাড়া প্রেমের কোনো স্মৃতি বা অভিজ্ঞতা নেই। হয়তো বড় হলে হতে পারে এখনো ছোট তো!

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com