শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৪:২৮ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশ গড়তে মুক্তিযোদ্ধাদের এগিয়ে আসতে হবে : জিএম কাদের

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৩৯ বার

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা জিএম কাদের এমপি বলেছেন, স্বাধীনতা সংগ্রাম শেষ হয়েছে কিন্তু মুক্তিযুদ্ধ এখনো শেষ হয়নি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্ব স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছে। কিন্তু এখনো দারিদ্র, অর্থনৈতিক বৈষম্য, সামাজিক অবিচার ও মানুষে মানুষে ভেদাভেদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম শেষ হয়নি। এই মুক্তি সংগ্রামে মুক্তিযোদ্ধাদের তিনি ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

শনিবার জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী অফিস মিলনায়তনে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির প্রতিনিধি সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা তিনি এ আহ্বান জানান। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির আহবায়ক বীরমুক্তিযোদ্ধা জাফর উল্লা মজুমদার আজাদের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসহাক ভূইয়ার পরিচালনায় এ প্রতিনিধি সম্মেলনে বক্তৃতা করেন পার্টির মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান খান, জহিরুল আলম রুবেল, যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু, মুক্তিযোদ্ধা পার্টির নেতা অধ্যক্ষ তফাজ্জল হোসেন, এ্যাড. রেজাউল করিম বাসেত, বিল্লাল হোসেন, হাজী আফতাব উদ্দিন, ইকবাল হোসেন তাপস, আব্দুস সালাম, এ্যাড. আজাহারুল হক, আইয়ুব আলী খান, আদেলুর রহমান লিজু ও হান্নান বিশ্বাস।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, মেজর অব. রানা মোহাম্মদ সোহেল এমপি, উপদেষ্টা মোহাম্মদ নোমান, ড. নুরুল আজহার, ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নুরু, মোস্তাকুর রহমান মোস্তাক, মোস্তফা আল মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ফখরুল আহসান শাহজাদা, জসীম উদ্দিন ভূঁইয়া, নির্মল দাস, হেলাল উদ্দিন, হারুন অর রশীদ, দফতর সম্পাদক সুলতান মাহমুদ, যুগ্ম দফতর এম.এ. রাজ্জাক খান, সম্পাদক হুমায়ন খান, মুক্তিযোদ্ধা নেতা গোলাম মোস্তফা, শফিউল আলম আরিফ, এ্যাড. মাহবুবুল আলম দুলাল, মফিজুল ইসলাম, আমিনুল ইসলাম, মাইনুল আহসান, কেন্দ্রীয় নেতা ফজলে এলাহী সোহাগ, জহিরুল ইসলাম মিন্টু, জিয়াউর রহমান বিপুল।

জিএম কাদের বলেন, যে মুক্তিযোদ্ধারা দেশের জন্য জীবন দিতে প্রস্তুত ছিলেন, দেশের মানুষের ন্যায্য অধিকার আদায়ের সংগ্রামে তাদেরই দায়িত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। জাতীয় পার্টির নেতৃত্বে নতুন বাংলাদেশ গড়তে মুক্তিযোদ্ধাদের এগিয়ে আসতে হবে। পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ শুধু মুখেই মুক্তিযোদ্ধাদের জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বলেননি, প্রতিটি কাজে প্রমাণ করেছেন। মুক্তিযোদ্ধাদের তিনি সম্মানিত করেছেন। মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য অফিস এবং ভাতার ব্যবস্থা করেছিলেন পল্লীবন্ধু। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দেয়ার সেই ধারাকে আরো সম্বৃদ্ধ করেছেন। এজন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদও জানান।

মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মদান এবং দেশমাতৃকার জন্য অবদান জাতি আজীবন কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবে। পল্লীবন্ধু এরশাদ মুক্তিযোদ্ধাদের জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান হিসেবে অভিহিত করেছেন। মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাষ্ট এবং জেলা পর্যায়ে অফিস নির্মাণের ব্যবস্থা করেছেন। মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান কারো দয়ার দান নয়, এটা তাদের অর্জন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com