মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:০৯ অপরাহ্ন

খালেদার মুক্তি দাবিতে কার্যকর আন্দোলনের সিদ্ধান্ত বিএনপির

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৪৯ বার

দলের চেয়ারপারসন কারাবন্দি খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং নিরপেক্ষ সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে নতুন নির্বাচনের দাবিতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০-দলীয় জোটের সঙ্গে আলোচনাসাপেক্ষে কার্যকর আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। গতকাল শনিবার গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

রাত সাড়ে ৮টায় শুরু হওয়া বৈঠকে লন্ডন থেকে স্কাইপের মাধ্যমে সভাপতিত্ব করেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। এতে অংশ নেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বরচন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

সূত্রের খবর, নিরপেক্ষ সরকার ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে নতুন নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বৈঠকে। এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ‘কলঙ্কজনক নির্বাচন’ আখ্যা দিয়ে সেই নির্বাচনের এক বছর পূর্ণ হওয়ার দিন অর্থাৎ আগামী ৩০ ডিসেম্বর দিনটিকে ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে পালন করা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেদিন কালো পতাকা মিছিল অথবা অনুমতিসাপেক্ষে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সূত্র মতে, আসন্ন আন্দোলন কর্মসূচিতে ঢাকা মহানগরকে বিশেষভাবে গুরুত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে মহানগরের প্রতিটি ওয়ার্ডের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে ওয়ার্ডের মূল দলের নেতাদের সুসম্পর্ক তৈরি করা, একসঙ্গে কর্মসূচি পালন করাসহ ঐক্য গড়তে নানা উদ্যোগ গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এবার যেন বিগত সময়ের মতো ঢাকা মহানগর আন্দোলনে ব্যর্থতা না আসে, তেমন প্রস্তুতি নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে বৈঠকে।

স্থায়ী কমিটির বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, গত ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচন বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে সবচেয়ে বড় একটি কলঙ্ক বলে আমরা মনে করি। কাজেই আসছে ৩০ ডিসেম্বর দিনটিকে ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। দিবসটি পালনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট, ২০-দলীয় জোট ও বিএনপি বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করবে।

এ ছাড়া বৈঠকে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা গুরুতর উল্লেখ করে তার মুক্তির দাবিতে ‘কার্যকর আন্দোলন’ গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান বিএনপি মহাসচিব।

স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী পালনের সিদ্ধান্ত

মির্জা ফখরুল জানান, আগামী ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী। এ উপলক্ষে বছরব্যাপী কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি। এ জন্য একটি উপকমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটি বছরব্যাপী কর্মসূচির পরিকল্পনা করবে এবং তা বাস্তবায়নের ব্যবস্থা নেবে। উপকমিটির প্রধান করা হয়েছে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে। সদস্যরা হলেন- গয়েশ্বরচন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান ও সেলিমা রহমান।

গাম্বিয়া, কানাডা ও নেদারল্যান্ডসকে ধন্যবাদপত্র দেবে

রোহিঙ্গা গণহত্যার অভিযোগে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করার জন্য গাম্বিয়াসহ নেদারল্যান্ডস ও কানাডাকে ধন্যবাদ জানিয়ে চিঠি দেবে বিএনপি। দলটির মহাসচিব এ তথ্য জানিয়ে বলেন, আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করার জন্য গাম্বিয়াকে এবং দেশটিকে এ মামলায় সহযোগিতা করার জন্য কানাডা ও নেদারল্যান্ডসকে ধন্যবাদ জানিয়ে পত্র দেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। তিনি এও বলেন, দুঃখজনক হচ্ছে যে, এ মামলায় বাংলাদেশের কোনো ভূমিকাই ছিল না।

আওয়ামী লীগের নতুন নেতৃত্বকে স্বাগত

আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় কাউন্সিলে গঠিত নেতৃত্বকে স্বাগত জানিয়েছে বিএনপি। এ প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা যেহেতু একটি রাজনৈতিক দল, সেহেতু অন্য সব রাজনৈতিক দলকেও সব সময় সহযোগিতা করি, স্বাগত জানাই। আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে গঠিত নেতৃত্বকে আমরা স্বাগত জানাচ্ছি। আশা করব, এ নতুন কার্যকরী পরিষদ তাদের অতীতের অপকর্ম ভুলে গিয়ে জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় অতিদ্রুত একটি নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করবেন। যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে একটি নিরপেক্ষ সরকার ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে এবং যে নির্বাচনে মানুষ ফিরে পাবে তাদের ভোটাধিকার।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, আওয়ামী লীগ একটি পুরনো ঐতিহাসিক রাজনৈতিক দল। দুর্ভাগ্যজনকভাবে এ দলের হাতেই বারবার গণতন্ত্র নিহত হয়েছে।

ফজলে হাসান আবেদের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ

স্থায়ী কমিটির বৈঠকে ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা ফজলে হাসান আবেদের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়। তার পরিবার ও ব্র্যাক পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করা হয়।

১৯ জানুয়ারি জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী পালনের সিদ্ধান্ত

আগামী ১৯ জানুয়ারি সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী পালনের সিদ্ধান্ত হয়েছে গতকাল দলটির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে।

আজ সংবাদ সম্মেলন

ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন প্রসঙ্গে দলীয় অবস্থান জানিয়ে আজ রবিবার বিকালে সংবাদ সম্মেলন করবে বিএনপি। দলটির মহাসচিব গতকাল সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com