শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন

প্রবীণদের নমুনা বাসা থেকে সংগ্রহের নির্দেশ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই, ২০২০
  • ১১৫ বার

করোনা ভাইরাসজনিত রোগ কোভিড-১৯ এর ঝুঁকি এড়াতে প্রবীণ অর্থাৎ ৫০ বছরের বেশি বয়সী মানুষের নমুনা বাসা থেকে সংগ্রহের নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় পরামর্শক কমিটির ফোকাল পয়েন্ট এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের উপসচিব শামীমা নাসরীন স্বাক্ষরিত চিঠিতে বুধবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে এই নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির ১৪তম সভার সুপারিশে জানানো হয় যে, প্রবীণরা কোভিড-১৯ আক্রান্ত হচ্ছে বেশি এবং বিভিন্ন কারণে তারা কোভিড পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহের স্থানে যেতে সক্ষম হচ্ছেন না। যার ফলে প্রবীণদের স্বাস্থ্যঝুঁকি বেড়ে যাচ্ছে। এজন্য তাদের সহজভাবে অথবা বিশেষভাবে কোভিড-১৯ পরীক্ষার ব্যবস্থা করা এবং সম্ভব হলে বাড়ি থেকে নমুনা সংগ্রহের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন।

‘এমতাবস্থায় প্রবীণ (৫০ বছর থেকে তদুর্ধ্ব) ব্যক্তিদের করোনা পরীক্ষার জন্য বাড়িতে গিয়ে নমুনা সংগ্রহের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।’

এদিকে অপর এক চিঠিতে জানানো হয়, কোভিড-১৯ পরীক্ষার জন্য নমুনা দেয়া থেকে পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া পর্যন্ত অনেক বেশি সময় লেগে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে পরীক্ষার ফল দ্রুত রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) পাঠানোর ব্যবস্থা একান্ত প্রয়োজন।

নমুনা পরীক্ষার ফল দ্রুততম সময়ে (৭২ ঘণ্টার মধ্যে) আইইডিসিআরে পাঠানোর ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে।

এছাড়াও অন্য আরো একটি চিঠিতে, বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে কোভিড-১৯ আক্রান্ত ও আক্রান্ত নন, এমন প্রসূতি মায়েদের চিকিৎসার জন্য আলাদা ইউনিট গঠনে জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির পরামশের্ প্রসূতি মায়েদের জন্য সরকারি হাসপাতালে (২৫০ শয্যা বিশিষ্ট) পৃথক কোভিড ইউনিট প্রস্তুত করার জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com