বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৫ অপরাহ্ন

তুরস্কের সীমান্ত এলাকা থেকে চলেই গেল সিরীয় কুর্দি বাহিনী

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৯ অক্টোবর, ২০১৯
  • ১০৯ বার

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে তুরস্কের সীমান্ত থেকে ৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকা থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কুর্দি নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সেস (এসডিএফ)। রোববার এক বিবৃতিতে তারা এ কথা জানানোর পর দামেস্ক এ ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছে।
এসডিএফের এ পদক্ষেপের পর তুরস্কের সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে ‘আগ্রাসন’ বন্ধ করা উচিত বলে মন্তব্য করেছে দামেস্ক। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়ার উত্তরাঞ্চল থেকে মার্কিন সেনাদের সরিয়ে নেয়ার পর সেখানে অবস্থানরত কুর্দি ওয়াইপিজি বাহিনীকে লক্ষ্য করে ৯ অক্টোবর থেকে ওই অঞ্চলে সামরিক অভিযান শুরু করে তুরস্কের সামরিক বাহিনী।

রাশিয়ার সোচিতে ২২ অক্টোবর তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন একটি সমঝোতাচুক্তিতে পৌঁছেন। ওই চুক্তি অনুযায়ী, সিরিয়ার সীমান্তরক্ষী ও রাশিয়ার সামরিক পুলিশের ওই সীমান্ত অঞ্চলে সিরিয়ার ভেতরে ৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকা থেকে ছয় দিনের মধ্যে ওয়াইপিজি যোদ্ধাদের সরিয়ে দেয়ার কথা রয়েছে। আজ মঙ্গলবার ওই সময়সীমা শেষ হবে।

ওয়াইপিজি কুর্দি নেতৃত্বাধীন এসডিএফ বাহিনীর মূল অংশ। এদের সাথে তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে তৎপর কুর্দি বিদ্রোহীদের সাথে সম্পর্ক আছে সন্দেহে আঙ্কারা ওয়াইপিজিকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে বিবেচনা করে; কিন্তু আইএসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এসডিএফ দীর্ঘ দিন ধরে মার্কিন বাহিনীর মিত্র হিসেবে তাদের পাশাপাশি থেকে লড়াই করেছে।

এই এসডিএফ এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘(এরদোগান-পুতিন) চুক্তির শর্তানুযায়ী সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে তুরস্ক-সিরিয়ার সীমান্ত এলাকা থেকে নতুন অবস্থানে সরে যাচ্ছে এসডিএফ।’ ‘রক্তপাত বন্ধ করতে ও ওই অঞ্চলের বাসিন্দাদের তুরস্কের হামলা থেকে রক্ষা করতে’ তারা ওই এলাকা থেকে সরে যাচ্ছে বলে এসডিএফ জানিয়েছে।

তারা সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলের কুর্দি নেতৃত্বাধীন প্রশাসনে ও প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ সরকারের মধ্যে ‘একটি গঠনমূলক সংলাপ’ নিশ্চিত করতে রাশিয়ার প্রতি আহ্বানও জানিয়েছে।

মস্কো প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের ঘনিষ্ঠ মিত্র এবং আট বছর ধরে চলা সিরিয়ার গৃহযুদ্ধের স্রোত বাশার আল আসাদের অনুকূলে নিয়ে আসতে ও দেশটির বিশাল অংশে বাশারের নিয়ন্ত্রণ পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে রাশিয়ার সামরিক শক্তি গুরুত্বপূর্ণ থভূমিকা রেখেছে। সোচির চুক্তি গত কয়েক বছরের মধ্যে এই প্রথম বাশারের বাহিনীকে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে তুরস্কের সীমান্ত অঞ্চলের কিছু অংশে ফেরার সুযোগ করে দিয়েছে। সূত্র : রয়টার্স।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com