শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০১:৪৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মানবতাবিরোধী অপরাধ একজনের মৃত্যুদণ্ড, তিনজনের আমৃত্যু কারাদণ্ড তৃতীয়বারের মতো কন্যা সন্তানের মা হলেন ন্যান্সি করোনা মহামারী শেষ হয়নি, বরং পরিবর্তিত হচ্ছে : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অন্য ছেলেকে বিয়ে, সাতদিনের মাথায় ‘প্রেমিকের’ হাতে খুন হলেন দিতি পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে শীর্ষে বাবর, রিজওয়ান, আফ্রিদি স্কুলের এক ছাত্রীর কাছে ‌‘হিরো সাজতেই’ শিক্ষককে পেটায় জিতু : র‌্যাব অর্থ আত্মসাতের মামলায় নর্থ সাউথের ৪ ট্রাস্টির জামিন নাকচ দক্ষিণ এশিয়ায় সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর ঢাকা অবশেষে পদ্মা সেতুতে সেই মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার আসল কারণ জানা গেল ফাঁস হলো আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জার্সি

লিবিয়ায় এখনও ২০,০০০ বিদেশি যোদ্ধা- জাতিসংঘ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৮৮ বার

এখনও কমপক্ষে ২০,০০০ বিদেশি যোদ্ধা ও ভাড়াটে অস্ত্রধারীই লিবিয়ার মারাত্মক সঙ্কট। তাদের কাছে অব্যাহতভাবে যাচ্ছে অস্ত্র। এর ফলে পরিস্থিতি আরো খারাপ হচ্ছে বলে সতর্ক করেছেন লিবিয়া বিষয়ক জাতিসংঘের ভারপ্রাপ্ত দূত স্টেফানি উইলিয়ামস। তিনি লিবিয়ান পলিটিক্যাল ডায়ালগ ফোরামের অনলাইন মিটিংয়ে বলেছেন, এসব যোদ্ধা লিবিয়ার সার্বভৌমত্বকে ভয়াবহভাবে লঙ্ঘন করছে। এটা হতাশাজনক। অস্ত্রনিষেধাজ্ঞারও লঙ্ঘন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন আল জাজিরা। উল্লেখ্য, লিবিয়ান পলিটিক্যাল ডায়ালগ ফোরাম হলো ৭৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি ফোরাম।

লিবিয়ায় যুদ্ধে লিপ্ত পক্ষগুলোকে তারা একটি চুক্তিতে আবদ্ধ করার জন্য চেষ্টা করছে। চেষ্টা করছে একটি অন্তর্বর্তী সরকার প্রতিষ্ঠার জন্য, যে সরকার ২০২১ সালের ডিসেম্বরে সেখানে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচন করবে এবং তার ভিতর দিয়ে দেশ পরিচালিত হবে। জাতিসংঘ লিবিয়ায় যুদ্ধ, বিশৃংখলা বন্ধের জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছে। তার অধীনেই অনলাইনে ফোরামের ওই বৈঠক হয়। উল্লেখ্য, ২০১১ সালে ন্যাটো সমর্থিত অভিযানে উৎখাত করা হয় লিবিয়ার নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে। তখন থেকেই দেশটিতে অব্যাহতভাবে সহিংসতা চলছে। ২০১৫ সাল থেকে সেখানে সশস্ত্র গ্রুপগুলোর মধ্যে লড়াই চলছে। দেশটি যে যার মতো দখলে রাখার চেষ্টা করছে। এর ফলে সেখানে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে দুটি প্রশাসন। একটি নেতৃত্বে আছে জাতিসংঘ স্বীকৃত গভর্নমেন্ট অব ন্যাশনাল একর্ড (জিএনএ)। অন্যটির নেতৃত্বে আছেন সেনাবাহিনীর কমান্ডার খলিফা হাফতার। স্টেফানি উইলিয়ামস পরে আল জাজিরাকে বলেছেন, সবাইকে লিবিয়ার প্রতি সম্মান দেখাতে হবে। তাদেরকে একত্রিত হবে, যাতে যুদ্ধবিরতি কার্যকরভাবে সফল হয় এবং সামরিক শক্তিকে প্রত্যাহার করা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com