বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৫:২২ পূর্বাহ্ন

জাতিসংঘে ভারত, ব্রাজিল ও দক্ষিণ আফ্রিকার বড় ভূমিকা : সমর্থন চীন-রাশিয়ার

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩ জুন, ২০২১
  • ৬৪ বার

নিরাপত্তা পরিষদসহ জাতিসংঘকে আরও কার্যকরী, প্রতিনিধিত্বমূলক ও ক্রিয়াশীল করে তুলতে এর সমন্বিত সংস্কার প্রয়োজন বলে আবারও জানাল উদীয়মান জাতীয় অর্থনীতির দেশগুলোর জোট ‘ব্রিকস’। জোটের দেশগুলো জাতিসংঘে উন্নয়নশীল দেশগুলোর প্রতিনিধিত্ব বাড়ানোর কথা জানিয়েছে যাতে তারা পর্যাপ্তভাবে বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে পারে।

সম্প্রতি ব্রিকস’র পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের এক সম্মেলনে আন্তর্জাতিক ইস্যুতে ভারত, ব্রাজিল ও দক্ষিণ আফ্রিকার বড় ভূমিকা পালনের কথা জানিয়েছে চীন ও রাশিয়া। এ ছাড়া জাতিসংঘে বড় ভূমিকা পালনে ব্রিকস জোটের এ তিনটি দেশের আগ্রহের কথাও পুনর্ব্যক্ত করেছে দেশ দুটি।

গত মঙ্গলবার এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ভার্চুয়াল এ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ব্রাজিলের পররাষ্ট্র মন্ত্রী কার্লোস আলবার্তো ফ্রাঙ্কো, রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভ্রভ, চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই এবং দক্ষিণ আফ্রিকার পররাষ্ট্রমন্ত্রী নালেদী পান্ডোর।

এসব দেশের মন্ত্রীরা সম্মেলনে একটি যৌথ বিবৃতি দেন। বিবৃতিতে তারা বলেন, চলমান পরস্পর সংযুক্ত আন্তর্জাতিক চ্যালেঞ্জগুলো বলিষ্ঠভাবে তুলে ধরা উচিত এবং বহুপাক্ষিক ব্যবস্থার সংস্কার করা উচিত। এ ছাড়া নিরাপত্তা পরিষদে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা ভূমিকার প্রশংসাও করেন মন্ত্রীরা। তারা নিরাপত্তা পরিষদে ব্রাজিলের সদস্য পদ পেতে দেশটির প্রতি স্বীকৃতিও জানান।

মন্ত্রীরা ২০০৫ সালের ওয়ার্ল্ড সামিটের ফলাফলের কথা মনে করিয়ে দিয়ে নিরাপত্তা পরিষদসহ জাতিসংঘে প্রয়োজনীয় বিস্তৃত সংস্কারের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। এর মাধ্যমে জাতিসংঘ আরও কার্যকরী, প্রতিনিধিত্বমূলক ও ক্রিয়াশীল হয়ে উঠবে বলে তারা মনে করেন। ব্রিকস’র পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের এই সম্মেলনে তারা জাতিসংঘে উন্নয়নশীল দেশগুলোর প্রতিনিধিত্ব বাড়ানোর কথা জানান। যাতে এসব দেশগুলো ব্যাপকভাবে বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে পারে।

সম্মেলনে মন্ত্রীরা অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ, নিরস্ত্রীকরণ ব্যবস্থা ও চুক্তিকে আরও শক্তিশালী করতে প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার কথা জানান। তারা বৈশ্বিক স্থিতিশীলতা, একতা, আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা বজায় রাখার আহ্বান জানান। মন্ত্রীরা বলেন, সকল দেশের জাতীয় উন্নয়ন ও টেকসই উন্নয়নের জন্য ক্রমবর্ধমান আন্তঃসংযুক্ত বিশ্বে বৈশ্বিক অর্থনীতির শাসন বা পরিচালন প্রক্রিয়া খুব গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডব্লিউটিও) স্বাভাবিক কার্যপক্রিয়া ও এর সংস্কারেরও কথা জানান মন্ত্রীরা।

সূত্র : এনডিটিভি

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com