শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:০৩ অপরাহ্ন

‘ডেল্টা’ যে কারণে করোনার অন্য ধরনের চেয়ে দ্রুত ছড়ায়

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৫ জুলাই, ২০২১
  • ৩৭ বার

বর্তমানে বিশ্বজুড়ে করোনার যে ঢেউ দেখা যাচ্ছে তার প্রধানতম কারণ হিসেবে করোনার ‘ডেল্টা ধরনকে’ দায়ী করছেন জনস্বাস্থ্যবিদেরা। সম্প্রতি এ বিষয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম সিএনএন। যেখানে ডেল্টাকে সবচেয়ে বিপজ্জনক ধরন হিসেবে আখ্যা দেওয়া হয়েছে।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০২০ সালের শেষ দিকে ভারতে প্রথম করোনার ডেলটা ধরন শনাক্ত হয়। একে শুরুর দিকে করোনার ভারতীয় ধরন বলা হতো। পরে ডব্লিউএইচওর পক্ষ থেকে এই ধরনের নতুন নাম দেওয়া হয় ‘ডেলটা ভেরিয়েন্ট’। ধরনটির বৈজ্ঞানিক নাম (বি.১.৬১৭)। গত মে মাসে করোনার ডেলটা ধরনকে ‘উদ্বেগজনক ধরন’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করে ডব্লিউএইচও।

ভারতে করোনার ডেলটা ধরন শনাক্তের পর তা দ্রুত দেশটিতে ছড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে ভারতে করোনার ডেলটা ধরন প্রাধান্যশীল হয়ে ওঠে। এ ধরনের কারণেই ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মারাত্মক আকার ধারণ করে। সংক্রমণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে দেশটি। এতে ভারতের স্বাস্থ্যব্যবস্থা কার্যত ভেঙে পড়ে। পরে করোনার ডেলটা ধরন যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হয়। এরপর একের পর এক দেশে ডেলটা ধরন শনাক্ত হওয়ার খবর আসতে থাকে।

ডব্লিউএইচও বলছে, বর্তমানে বিশ্বের প্রায় ১০০টি দেশে করোনার ‘ডেলটা’ ধরন শনাক্ত হয়েছে। ডব্লিউএইচও সতর্ক করে বলেছে, বিশ্বে ডেলটার সংক্রমণ দ্রুত বাড়ছে। ফলে করোনার এই ধরন অন্য সব ধরনকে দ্রুত ছাপিয়ে যেতে পারে। এভাবে শিগগিরই বিশ্বে ডেলটা করোনার আধিপত্যশীল ধরন হয়ে উঠতে পারে।

সিএনএন জানায়, একটি গবেষণা ইঙ্গিত দিয়েছে যে করোনার অন্য সব ধরনের চেয়ে এই ডেলটা ধরন মানুষের মধ্যে দ্রুতগতিতে সংক্রমণ ছড়িয়ে থাকতে পারে। কারণ, ধরনটি মানুষের শরীরে দ্রুত হারে নিজের অনেকগুলো ‘কপি’ করতে পারে।

চীনের বিজ্ঞানীরা ডেলটায় সংক্রমিত রোগীদের নিয়ে গবেষণা করেছেন। এ ক্ষেত্রে তারা মহামারির শুরুর দিকে আক্রান্ত রোগীদের সঙ্গে ডেলটায় সংক্রমিত রোগীদের তুলনা করেছেন। তারা দেখতে পেয়েছেন যে ডেলটায় সংক্রমিত রোগীদের শরীরে ভাইরাসের উপস্থিতি অনেক বেশি। তুলনামূলক বিচারে এই পরিমাণ ১ হাজার ২৬০ গুণ বেশি।

ব্রাউন ইউনিভার্সিটির স্কুল অব পাবলিক হেলথের ডিন আশীষ ঝা বলেন, ‘যারা ডেলটা ধরনে সংক্রমিত হচ্ছেন, তাদের শরীরে ভাইরাসের পরিমাণ অনেক বেশি। শরীরে ভাইরাস প্রবেশের খুব অল্প সময়ের মধ্যেই তা অনেক বেড়ে যাচ্ছে। এই সময়টা পাঁচ বা সাত মিনিট। তা ছাড়া এই ধরনে সংক্রমিত হতে আক্রান্ত ব্যক্তির ছয় ফুট দূরত্বের মধ্যেও কাউকে আসতে হবে না।’

যারা মানুষ টিকা নেননি, তারাই বেশি ডেলটায় সংক্রমিত হচ্ছেন বলে জানান আশীষ ঝা। তিনি আরও বলেন, ‘ডেলটা থেকে লোকজন সহজেই সংক্রমিত হচ্ছেন।’

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com