সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:০৬ অপরাহ্ন

নতুন গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কার

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১১ আগস্ট, ২০২১
  • ৪৩ বার

দেশে গ্যাসের সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে। সংকট মোকাবিলায় বিদেশ থেকে গ্যাস আমদানি করতে হচ্ছে। এ অবস্থায় সিলেটের জকিগঞ্জে নতুন গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কারের বিষয়টি কতটা আশা জাগানিয়া, তা সহজেই অনুমেয়।

জানা গেছে, দেশের ২৮তম এ গ্যাসক্ষেত্রে ৬ হাজার ৮০০ কোটি ঘনফুট গ্যাসের মজুত রয়েছে। এ গ্যাসক্ষেত্র থেকে প্রতিদিন ১০০ কোটি ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করা সম্ভব; এ হারে ১২ থেকে ১৩ বছর জাতীয় গ্রিডে এ গ্যাস যুক্ত করা যাবে। উত্তোলনযোগ্য এ গ্যাসের দাম প্রায় ১ হাজার ২৭৬ কোটি টাকা। জানা গেছে, রূপকল্প-২ খনন প্রকল্পের অধীনে ২০১৮ সালে জকিগঞ্জ পৌরসভার পশ্চিম আনন্দপুরে একটি কূপ খননের আনুষ্ঠানিক কাজ শুরু হয়।

জমি অধিগ্রহণ শেষে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান কোম্পানি বাপেক্স নিজস্ব বিজয়-১২ রিগ স্থাপনের মাধ্যমে গত ১ মার্চ মূল কূপ খননের কাজ শুরু করে। এরপর রাত-দিন ২৪ ঘণ্টা চলে কর্মযজ্ঞ। এ কারণে মাত্র ২ মাস ৭ দিনে ২৮৮৮ মিটার কূপ খনন কাজ শেষ হয়। যদিও ২৮৭০ থেকে ২৮৮৮ মিটারের মধ্যে গ্যাসের সন্ধান পাওয়া গেছে। ৮ মে ডিএসটি পরীক্ষা শেষে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে গ্যাস মজুতের বিষয়টি। বাপেক্সের সংশ্লিষ্ট প্রকল্প পরিচালক জানিয়েছেন, দেশের ইতিহাসে অতীতে এত কম সময়ে আর কোনো গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কৃত হয়নি। এ প্রকল্পে ৮৯ কোটি টাকা বরাদ্দ থাকলেও প্রতিষ্ঠানটি খরচ করেছে ৭৫ কোটি টাকা। মাত্র ২ মাস ৭ দিনে কূপ খনন শেষ করার মধ্য দিয়ে বাপেক্স নতুন করে তাদের সক্ষমতার পরিচয় দিল। এ সাফল্য বিবেচনায় নিয়ে দেশে ত্রিমাত্রিক জরিপসহ প্রয়োজনীয় অন্যান্য কর্মকাণ্ড পরিচালনায় কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া দরকার।

তুলনামূলক স্বল্প ব্যয়ে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান ও উত্তোলনে সরকারি সংস্থা বাপেক্স ইতিমধ্যে সুনাম অর্জন করেছে। বাপেক্সের সক্ষমতা আরও বাড়ানো হলে প্রতিষ্ঠানটি মানুষের আশা-আকাক্সক্ষা পূরণে অধিক কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারবে।

কোনো কোনো বিশেষজ্ঞ মনে করেন, দেশে আগামী কয়েক বছরের মধ্যে গ্যাসের উৎপাদন কমে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে; এছাড়া ২০৩৫ সালের মধ্যে গ্যাস নিঃশেষ হওয়ার আশঙ্কাও রয়েছে। এসব তথ্য বিবেচনায় রেখে গ্যাসের সংকট মোকাবিলায় কী করণীয় তা এখন থেকেই ভাবতে হবে।

এ ক্ষেত্রে আশার আলো দেখাতে পারে আমাদের সমুদ্রসীমায় মজুত খনিজ সম্পদ। দেশের সমুদ্রসীমায় অগভীর ও গভীর সমুদ্রে অনুসন্ধান চালানো হলে আশা করা যায় সেখানে নতুন নতুন গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান মিলবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com