বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৪:২০ অপরাহ্ন

ভারতে বিক্ষোভকারীর মৃত্যুতে উত্তেজনা, প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে আটক ও হেনস্তার দাবি

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর, ২০২১
  • ২৭ বার

ভারতে কৃষি সংস্কারের প্রতিবাদে বিক্ষোভে গত রোববার আটজনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় কৃষক পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করতে গেলে পুলিশের হাতে আটক এবং হেনস্থার শিকার হয়েছেন বলে দাবি করেছেন কংগ্রেস নেতা প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভাদ্রা।

তার দাবি, সহিংসতায় নিহত কৃষকদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করার জন্য তিনি লাখিমপুর খেরায় পৌঁছানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু এ সময় তাকে পথে একাধিকবার বাধা দেওয়া হয়। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি থেকে এ তথ্য জানা গেছে। খবরে বলা হয়, প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে আটক করে থানায় নিয়ে যাবার পর তাকে এখন ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশ রাজ্যে কৃষকদের বিক্ষোভে বিজেপির একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ছেলে গাড়িচাপা দিয়ে অন্তত চারজন কৃষককে হত্যা করেছেন, এই অভিযোগ ওঠার পর জাতীয় রাজনীতি উত্তাল হয়ে উঠেছে। তবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রার ছেলে আশিস মিশ্রা বিবিসির কাছে এই অভিযোগ অস্বীকার করলেও উত্তরপ্রদেশ সরকার তার বিরুদ্ধে গতকাল সোমবার হত্যার চার্জ এনেছে।

কংগ্রেস সূত্রের বরাত দিয়ে বিবিসি খবরে বলা হয়েছে,  গতকাল সোমবার খুব সকালে সড়কপথে লাখিমপুর খেরির দিকে রওনা হওয়া প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে আটকে দেয় রাজ্য পুলিশ। কংগ্রেস নেত্রী পুলিশের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়লে তাকে কিছু সময়ের জন্য একটি সরকারি গেস্ট হাউসেও আটক রাখা হয়।

এ প্রসঙ্গে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী পরে বলেন, ‘আমি লাখিমপুর খেরি গেলে সেখানে রাজনৈতিক উত্তেজনা তৈরি হবে এটা একদম বাজে কথা। ওখানে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে কারণ কেউ সেখানে গাড়িচাপা দিয়ে নিরীহ মানুষকে মেরেছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘তাদেরকে সমবেদনা জানাতেও আমরা যেতে পারছি না, কোনো আইনি পরোয়ানা বা নির্দেশ ছাড়াই আমাদের আটক করা হচ্ছে।’

এদিকে গত রোববার নেপাল সীমান্ত লাগোয়া উত্তর প্রদেশের লাখিমপুর খেরিতে ভারতে কৃষি সংস্কারের প্রতিবাদে বিক্ষোভের ঘটনায় চারজন কৃষকসহ আটজনের মৃত্যুর পর শহরে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, উত্তরপ্রদেশের লাখিমপুর খেরিতে গত রোববার রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌরিয়া ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রার সফরের সময় শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ দেখানোর প্রস্তুতি নিয়েছিলেন স্থানীয় কৃষক নেতারা। ভারতের বিতর্কিত কৃষি আইনের বিরুদ্ধে তাদের প্রতিবাদ হঠাৎ করেই সহিংস মোড় নেয়- যখন মন্ত্রীর ছেলের কনভয় আন্দোলনরত কৃষকদের অন্তত চারজনকে পিষে দিয়ে যান। এরপর সেখানে যে তীব্র সহিংসতা শুরু হয়, তাতে মারা যান আরও অন্তত চারজন।

সূত্র : বিবিসি

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com