শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ১০:৩৫ অপরাহ্ন

বাবর এই যুগের ব্র্যাডম্যান-লারা

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২২
  • ১৬ বার

পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজমকে এই যুগের ডন ব্র্যাডমান ও ব্রায়ান লারা হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন পাকিস্তানের সাবেক দলনেতা রশিদ লতিফ।

লতিফের মতে, দুর্দান্ত ব্যাটিং পারফরমেন্সে বহু আগেই নিজ দেশের কিংবদন্তি ক্রিকেটার জাভেদ মিঁয়াদাদ, ওয়াসিম আকরাম, ইনজামাম উল হকদের ছাড়িয়ে গেছেন বাবর। তাই এই যুগে বিশ্ব ক্রিকেটের দুই কিংবদন্তি ব্র্যাডম্যান-লারাদের কাতারেই আছেন বাবর।

ক্রিকেট ডেনসের ইউটিউব চ্যানেলে এক সাক্ষাৎকারে লতিফ বলেন, ‘আমি ২০১৯ সালেই টুইটারে লিখেছিলাম, যখন আমরা ইংল্যান্ড সফরে ছিলাম। আমি যাদের সাথে খেলেছি তাদের সবার নাম লিখেছিলাম, মিঁয়াদাদ-ওয়াসিম-ওয়াকার-ইনজামাম-ইউসুফ-ইউনুস-সাকলাইন। তবে সকলের চেয়ে এগিয়ে বাবর। আমি অনেক আগের কথা বলছি। অবশ্যই এরপর সে আরো অনেক ভালো খেলোয়াড় হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘অবশ্যই আমরা তুলনা করতে পারি না, কারণ আমরা এখানে শুধুমাত্র বাবরের কথা বলছি না। বিরাট কোহলি-রোহিত শর্মা, কেন উইলিয়ামসনরা ১০ ফিল্ডারের মাঝে ওয়ানডে খেলছে।’

বাবরকে এ যুগের ব্র্যাডম্যান-লারা বললেও, বাবরের চেয়ে পাকিস্তানে সেরা ব্যাটার হিসেবে সাঈদ আনোয়ারের নাম বললেন লতিফ।

তিনি বলেন, ‘আমি সাঈদ আনোয়ারের কথা বলবো। তার মতো ব্যাটার দেখা যায়নি। নিঃসন্দেহে পাকিস্তানের এক নম্বর ব্যাটার সে। আমি তাকে খুব কাছ থেকে দেখেছি এবং বিশ্বাস করুন সে একজন ক্যারিশম্যাটিক খেলোয়াড়। সে অল্প অনুশীলন করতো। তাই দুই যুগের খেলোয়াড়দের মধ্যে তুলনা করাটা ঠিক হবে না।’

লতিফ আরো বলেন, ‘বর্তমানে বৃত্তের ভেতর পাঁচজন ফিল্ডার থাকে। আগে থাকতো চারজন। বৃত্তের মধ্যে একজন ফিল্ডার কম থাকলে, আনোয়ার বা ইনজামাম বোলারদের খেয়ে ফেলতো। তারা ওই যুগের গ্রেট। তিনি (বাবর) এই যুগের ব্র্যাডম্যান-লারা। এটিই মূল বিষয়।’

২০১৫ সালে পাকিস্তানের হয়ে অভিষেক হয় বাবরের। এখন পর্যন্ত ৪০ টেস্টে দুই হাজার ৮৫১ রান, ৮৬ ওয়ানডেতে চার হাজার ২৬১ এবং টি-টোয়েন্টিতে ৭৪ ম্যাচে দুই হাজার ৬৮৬ রান করেছেন বাবর।

সূত্র : বাসস

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..

© All rights reserved © 2019 WeeklyBangladeshNY.Net
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com